বেসিক ইলাস্ট্রেটর এর কাজ (পর্ব ৪ )

আসসালামুআলাইকুম, 

আপনারা সবাই কেমন আছেন, আশা করি নিশ্চই ভালো আছেন সবাই। আমরা আর্টবোড বা ডকুমেন্ট তৈরী করা    শিখেছি। আজ আমরা ব্যাকগ্রাউন্ড দেওয়া আর আর্টবোর্ড/ডকুমেন্ট সেভ করা শিখবো।

আমরা প্রথমেই কোন একটা ব্যাকগ্রাউন্ড দিয়ে নিতে পারি,ব্যকগ্রাউন্ড দেওয়ার জন্য আমরা ঠিক যে সাইজের আার্টবোর্ড নিয়েছি ঠিক সেই সাইজের একটা চতুর্ভুজ নিবো, তারপর আমরা কালার ঠিক করে দিবো ব্যাকগ্রাউন্ড এর। বেশিরভাগ ক্ষেত্রই সাদা ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যাবহার করা করি তাই সাদা কালার সিলেক্ট করবো। হয়ে গেলো ব্যকগ্রাউন্ড।এখন আমরা কোন কিছু আাকতে গেলে ব্যাকগ্রাউন্ড একটু ঝামেলা করতে পারে অর্থাৎ কোন কিছু নরাতে ব্যাকগ্রাউন্ড সহ সরে যাবে। তাই আমরা ব্যাকগ্রাউন্ড লক করে দিবো তার জন্য ব্যাকগ্রাউন্ড সিলেক্ট করে  কিবোর্ড থেকে (Ctrl+2) press  করবো, তাহলে এটি লক হয়ে যাবে, তার পর আমরা যা আাকতে চাই এর উপর তাই আাকতে পারবো। 

ধরুন আমরা কোন কিছু একে নিয়েছি ব্যাকগ্রাউন্ড ছাড়াই তাহলে   তারপর যদি ব্যাকগ্রাউন্ড দিতে চাই তাহলে কি সব ডিলেট করে নিবো আাবার ব্যাকগ্রাউন্ড নিবো না তেমন কিছুই করতে হবে না। আমরা ধরুন কোন কিছু একেছি নিচের ছবির মতো। 

তারপর আমরা কিভাবে ব্যাকগ্রাউন্ড দিবো। তার জন্য আমরা ঠিক আগের মতো একটা চতুর্ভুজ/Rectangle নিবো কিন্তু যখন ই আমরা একটা চতুর্ভুজ নিবো দেখবো যা একেছিলাম কিছুই আর নেই কারন ব্যাকগ্রাউন্ড তো পিছনে থাকে আমরা পরে নেওয়ায় এটা সামনে হয়েছে আার যা একেছিলাম সব পিছনে তাই আর কিছুই দেখা যাচ্ছে না। ঠিক নিচের ছবির মতো আমরা ব্যাকগ্রাউনড সিলেক্ট থাকা অবস্তায় মাউস এর 

রাইট বাটন ক্লিক করবো তারপর Arrange থেকে send to back click করলেই ব্যাকগ্রাউন্ড পিছনে চলে যাবে। 

এটা করার পরের অবস্থা ।

এখন আমরা ডকুমেন্ট সেভ করা শিখবো।

তারজন্য আমরা প্রথমে File এ যাবো তারপর Save as ক্লিক করবো।

তারপর আমাদের নিচের ছবির মতো একটা বক্স আসবে আমরা ইচ্ছেমতো লোকেশন ঠিক করবো সেভ করার জন্য তারপর আমরা নাম দিবো ইচ্ছেমতো। আমি লোকেশন Desktop দিয়েছি আর ডকুমেন্ট এর নাম file1 দিয়েছি। 

তারপর আমরা ইচ্ছে মতো এই ড্রোপডাউন থেকে ফাইল ফরমাট সিলেক্ট করে দিবো। এখানে (AI,PDF,EPS,AIT,SVG,SVGZ) এই কয়টি ফাইল ফরমাট এ সেভ করতে পারবো । বেশিরভাগই আমরা AI ফাইল সেভ করি। 

তারপর আমরা Save দিলেই ফাইল টি সেভ হয়ে যাবে।

আর এমন একটি বক্স আসবে সেটা ok করে দিতে হবে।

আমরা যেহেতু ফাইল টি ডেক্সটপ এ সেভ করেছি এটি সমনেই দেখা যাবে ডেক্সটপ এ আর AI ফাইল সেভ করেছি তাই ঠিক এমন হবে। এই ফাইল টি ওপেন করার জন্য আমরা এটির উপর ডাবল ক্লিক করলেই এটি ইলাস্ট্রেটর এ  ওপেন হবে। 

আর যদি আমরা যদি আমরা JPEG /PNG তে সেভ করতে চাই, যেই ফাইল টি আসলে Image হিসেবে দেখতে পারবো তাহলে File তারপর Export তারপর Export as দিবো।

তারপর লোকেশন, ফাইল নেম দিয়ে ড্রপডাউন থেকে PNG/JPG সিলেক্ট করে দিবো। বা অন্য কোন ইচ্চামতো ফাইল ফরমাট এ সেভ করতে পারি।

তারপর Export এ ক্লিক করবো।তারপর এমন একটা বক্স আসলে ok করবো।

তারপর ডেক্সটপ এ গিয়ে দেখতে পারবো ঠিক এবাবে সেভ হয়েছে।

  এটিও ডাবল ক্লিক করলে Image হিসেবে ওপেন হবে। ঠিক নিচের ছবি র মতো। 

তবে AI ফাইল এ সেভ করার সুবিধাজনক। কারন আমরা যতবার ইচ্ছা সেটিকে ইডিট করতে পারবো কিন্তু JPG/PNG কে আর ইডিট করতে পারবো না। তাই আমরা সবকিছুই প্রথমে AI ফাইল সেভ করে রাখবো আর পরে এক্সপোর্ট করবো। 

আজকে এতোটুকুই। আশা রাখি সবাই বুঝতে পারবেন। পরবর্তী পর্বে নতুন কিছু দেখানো হবে। আল্লাহ হাফেজ। সবাই ভালো থাকবেন।

0
0
Fozia Sayda

Fozia Sayda

আসসালামুআলাইকুম, আমাদের ওয়েবসাইট এ আপনাকে স্বাগতম। আমি অনার্স তত্বীয় বর্ষের একজন ছাত্রী। আমি মনে করি একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি আমাদের অনেক কিছুই শেখার আছে । আমরা আমাদের আশে পাশে থেকে অনেক বিষয়ে জানতে পারি। অবসর সময়গুলো নষ্ট না করে প্রতিনিয়ত কিছু না কিছু শিখে যুগের সাথে আমাদের তাল মিলিয়ে চলা উচিত। আমরা আমাদের ওয়েবসাইট এ আপনাদের সহজভাবে কিছু জিনিস শিখানো বা জানানোর চেষ্ঠা করছি। ধন্যবাদ সবাইকে আমাদের পাশে থাকার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.